ইংরেজি ভাষা শেখার সহজ উপায় – ১২টি

আপনি কি খুব টেন্সেন এ আছেন? অনেকভাবেই চেষ্টা করেছেন ইংরেজি শিখার? কিন্তু বুঝতে পারছেন না কিভাবে ইংরেজি ভাষা শিখবেন? নিশ্চয় গুগল এ সার্চ করে অনেক সময় ও নষ্ট করেছেন। তবুও সফল হন নি, তো? আর তাই তো আবার নতুন কিছু উপায়ের সন্ধানে মুখ চেয়ে আছেন গুগল সার্চ এর ওপর। এইসব সমস্যা দূর করতে অর্থাৎ ইংরেজি ভাষা শেখার সহজ উপায় গুলোই তুলে ধরবো এখানে।

মাতৃভাষার মতো করে কেন ইংরেজি আসে না, এটাই ভাবছেন তো? মাতৃভাষায় কথা বললে যে comfort অনুভব করেন, তা ইংরেজি তে অনুভব করেন না তো? মাতৃভাষা মানে তো মা এর ভাষা, মানে আপনি ছোটবেলা থেকে যে ভাষা শুনে আসছেন, বাবা মা এর সাথে, পরিচিতদের সাথে যে ভাষায় জন্মের পর থেকে কথা বলছেন।

মাতৃভাষার মতো comfort অনুভব করতে চাইলে, আপনার পরিবেশ কে পরিবর্তন করতে হবে যা খুব একটা সহজ নয়। তবে ওই যে পরিশ্রম আর জোরালো ইচ্ছে দিয়ে কি না পাওয়া যায়?

ইংরেজি ভাষা শেখার সহজ উপায়

আপনি আপনার স্মার্ট ফোন দিয়ে “কিভাবে ইংরেজি ভাষা শিখবেন” সার্চ করলে অনেক কিছু টিপস তো পাবেন, কিন্তু আপনাকে পড়ে দেখতে হবে কোন টিপসগুলো আপনার পক্ষে সুবিধে, কোন টিপস গুলো আপনি সহজেই চর্চা করতে পারবেন, কোন টিপসগুলোতে আপনি উপকৃত হবেন।

সবার জন্য সব টিপস কার্যকরী হয় না। যেমন সব ফেস-ক্রিম সবাইকে সুইট করে না, যেমন সব খাবার সবাই সমানভাবে হজম করতে পারে না, ঠিক সেইরকমভাবেই আপনাকেও দেখে নিতে হবে কোন টিপসগুলো আপনার পক্ষে খুবই সহজভাবে চর্চা করা সম্ভব।

এমনই কিছু খুবই সহজ টিপস দেখে নিন এখানে-

১। পরিবেশ

জানেন তো সব গাছপালার জন্য একটা নির্দিষ্ট পরিবেশ থাকে। সেই পরিবেশ না পেলে গাছটি বেড়ে ওঠে না। ঠিক সেইভাবে, প্রতিটি কাজকর্মের জন্য একটা নির্দিষ্ট পরিবেশ দরকার।

যেমন ধরুন, আপনি প্রচুর ভালো হতে চান ইংরেজিতে কথা বলায়, ইংরেজি লিখাতে; তাহলে আপনি কিছু বেসিক বাক্যগুলো একটা কাগজে লিখে আপনার রুমের দেওয়ালে চিটিয়ে রাখবেন। পড়ার রুমটিকে ভালোভাবে সাজাবেন। মানে আপনার পড়ার টেবিল এ একটা ডিক্সেনারি রাখবেন। দেওয়ালে ইংরেজি শব্দ এ ভরপুর কাগজ চিটিয়ে রাখবেন। 

একটা নিজস্ব রুম থাকলে ভালো আর যদি তা না থাকে, তাহলে আপনাকে খুব সকালে উঠে ১ ঘণ্টা ইংরেজির জন্য রাখতে হবে। এমন ১ ঘন্টা যে সময়ে আপনার আশেপাশে কেও থাকবে না। আপনি নিজের মনে ইংরেজিতে সচ্ছন্দে যেন কথা বলতে পারেন। এই পরিবেশ পাওয়ার জন্য আপনি খুব সকালে ছাদে চলে যেতে পারেন।

এইভাবে নিজেকেই নিজের পরিবারের সাথে খাপ খাইয়ে একটা পড়ার পরিবেশ গড়ে তুলতে হবে। আর পরিবেশ গড়ে তোলার দায়িত্ব কিন্তু আপনারই।

২। মনে মনে ইংরেজি ভাষা বলুন নিজেই নিজের সাথে

ঠিকঠাক পরিবেশ গড়ে নিতে পারলে, আপনি ওই পরিবেশে নিজেই নিজের সাথে কথা বলুন। যেমন ধরুন- একটা ছোটদের গল্প আপনি বাংলাতে জানেন। সেই গল্পটা আপনি ইংরেজিতে বলার চেষ্টা করুন।  বাড়ীতে যদি কোন বাচ্চা থাকে তাকে টুকটাক ইংরেজি শেখান, সেইসব শেখান যেসব ব্যাপারে আপনি খুবই কনফিডেন্ট।

৩। কাছে ডিক্সেনারি রাখুন

নিজের পড়ার টেবিলে ডিক্সেনারি রাখুন। তবে ইংরেজি থেকে বাংলা ডিক্সেনারি ব্যবহার করবেন না। ইংরেজি থেকে ইংরেজি ডিক্সেনারি ব্যবহার করুন। ইংরেজি শব্দগুলোর অর্থ ইংরেজিতেই বোঝার চেষ্টা করুন।

ডিক্সেনারি
ইংরেজি টু ইংরেজি ডিক্সেনারি

৪। বেসিক কিছু ইংরেজি বাক্য মুখস্থ করুন

কিছু খুবই সহজ বাক্য যেগুলো যে কোন কারো সাথে কথা বলতে গেলে প্রয়োজন হয়, সেইসব বাক্যগুলো একটা কাগজে লিখে রাখুন। যেমন ধরুন – তুমি কেমন আছো, তোমার কোথায় বাড়ী, তোমার বাবা মা এর নাম কি, তোমার স্কুল এর নাম কি ইত্যাদি।

আপনি আপনার সম্বন্ধে কিছু বাক্যও লিখে রাখুন। যেমন – আমি ২০১০ সালে নেতাজী সুভাষ চন্দ্র ইঞ্জিনীয়ারিং কলেজ থেকে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনীয়ারিং এ পাস করেছি; আমি ২০০৮ সালে কমলপুর স্কুল থেকে হাইয়ার সেকেন্ডারি পরীক্ষায় ৯২% মার্কস পেয়েছি; আমি অবসর সময়ে গাছ লাগাতে ভালোবাসি। আমি গল্প বই পড়তে ভালোবাসি।

৫। বেশী করে ইংরেজি বই পড়ুন

বাচ্চাদের গল্প বই গুলো খুবই সহজ হয়। শুরুতে এইরকমেই কিছু সহজ সহজ গল্প বই পড়ুন। পরে বড়দের গল্প বই পড়ুন।

ইংরেজি গল্প বই পড়ুন
পড়তে থাকুন

প্রথম প্রথম আপনার খুব অস্বস্তি হবে ইংরেজি বই পড়তে কিন্তু তাও হাল ছাড়বেন না। বরং আপনি প্রতিটি শব্দের মানে বোঝার চেষ্টা না করে, প্রতিটি বাক্যের মানে বোঝার চেষ্টা করুন। অস্বস্তি হলেও নিজের বই পড়াটা চালিয়ে যান।

৬। আপনার ইংরেজি ভাষা তে কথা বলাতে কে কি ভাবল, পরোয়া করবেন না

অন্যের ভাবনা যেন কোনোভাবেই আপনাকে বাজেভাবে প্রভাবিত না করে, সেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখবেন। আপনি মানুষটা তো আপনিই। বিভিন্ন লোকে বিভিন্ন কমেন্ট দেবে, কেও বলবে ভালো, কেও বলবে খারাপ। কিন্তু আপনি তো সেই একই ইংরেজি কথা বলেছেন, তবুও কেও ভালো ,কেও খারাপ বলছে কেন?

কেও খারাপ বললে, সঙ্কোচবোধ না করে, তাকে জিগ্যেস করবেন যে কোথায় কোথায় আপনি ভুল বলেছেন, নাকি উচ্চারণ এ ভুল হয়েছিল, নাকি ইংরেজি বলার ওয়ে টা ঠিক ছিল না, কোনটার জন্য তার খারাপ লেগেছে?

যে আপনার ইংরেজিতে কথা বলাকে ভালো বলেছে, তার ভালো কমেন্ট পেয়ে আপনি খুশীতে ইংরেজি শেখার যে স্টেপসগুলো রেগুলার ফলো করছিলেন, সেইগুলো করা বন্ধ করে দেবেন না কিন্তু। এমনও তো হতে পারে যে ভালো বলেছে, সে আসলে আপনাকে খুব ভালবাসে আর তাই আপনার ভুলগুলো ধরছে না, কিংবা আসলে সেই আপনার চেয়ে কম ইংরেজি জানে।

বরং যে আপনার ইংরেজি বলাতে খারাপ কমেন্ট করেছে, তার থেকেই আপনি শিখতে পারবেন, লাভবান হবেন। যেখান থেকেই নেগেটিভ কমেন্ট পাবেন, তাকে জিগ্যেস করবেন আপনার ভুলটা কোথায়?

৭। ভুল গুলো কোথাও লিখে রাখুন

যে যে ভুলগুলো বন্ধু বা আত্মীয়স্বজনদের থেকে জানতে পারলেন, সেই সেই ভুলগুলো কোথাও লিখে রাখুন। সেই ভুলগুলোকে ঠিক করে পর ঠিকটাও লিখে রাখুন।

অন্যের থেকে নিজের ভুল জানতে দ্বিধাবোধ করবেন না। যেমন ব্যর্থতা থেকেই সাফল্য আসে ঠিক তেমনি, নিজের ভুলগুলো জানতে পারলেই আপনি সেগুলোকে সংশোধন করার সুযোগ পাবেন, আর এইভাবেই তো একদিন আপনি ইংরেজিতে পারদর্শী হয়ে উঠবেন।

৮। ভুল হলেও ইংরেজি ভাষা বলতে থাকুন

ভুল হচ্ছে বলে খারাপ ভেবে, ইংরেজি বলার বা শেখার যে চেষ্টা আপনি শুরু করেছেন টা বন্ধ করে দেবেন না। এমনও তো হতে পারে, আপনি সাফল্যের থেকে আর মাত্র দুই হাত দূরে আছেন। তাই ভুল হলেও আপনি আপনার চেষ্টা চালিয়ে যান।

৯। একই ভুলের পুনরাবৃত্তি করবেন না

আপনি আপনার ভুলগুলোকে সংশোধন করে ঠিকভাবে বাক্যগুলো বলা প্রাকটিস করুন। নিজের মনে মনেই সঠিক বাক্যগুলো বলতে থাকুন।

আপনার ভুল আপনি জানতে পেরে তা সংশোধন করে পর অন্যদের সামনে যখন বলবেন, খেয়াল রাখবেন, একই ভুলের পুনরাবৃত্তি যেন না হয়।

১০।  কোন বন্ধু বা বাড়ীর কোন প্রিয়জনের সাথে একটা নির্দিষ্ট সময়ে ইংরেজি ভাষা তে কথা বলুন

একটি সময় ঠিক করে রাখুন- মাত্র ১০ মিনিট এর জন্য যে সময়ে আপনি আপনার বন্ধুকে ফোন করে সব কথাগুলো ইংরেজিতে বলবেন। আবার ১০ মিনিট সময় ঠিক করে রাখুন, যে সময়ে আপনি আপনার পরিবারের লোকজনের সাথে ইংরেজিতে কথা বলবেন।

এই ছোট ছোট সময়গুলোই কিন্তু আপনার জীবনে বিশাল পরিবর্তন নিয়ে আসতে পারে।

১১। ইংরেজি ভাষা তে ভাবতে শিখুন

আমাদের প্রত্যেকের মনেই নানান রকমের ভাবনা চলতে থাকে। সেই ভাবনাগুলো আমাদের মাতৃভাষাতেই চলতে থাকে।

এই ভাবনাগুলোকে ইংরেজিতে ভাবার চেষ্টা করুন। যেদিন দেখবেন যে এই ভাবনাগুলো স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে আপনার মনে খেলছে, সেদিন জানবেন আপনি একদম সাফল্যের কাছে চলে এসেছেন।

১২। ইংরেজি ভাষা তে স্বপ্ন দেখুন

ভাবনাগুলো ইংরেজিতে ভাবতে পারলে, স্বপ্ন ও দেখা শুরু করুন ইংরেজিতে। স্বপ্ন মানে ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে যে স্বপ্ন দেখেন সেই স্বপ্নের কথা বলছি না। জীবনে বড় হওয়া নিয়ে যে স্বপ্ন আপনি দেখেন সেই স্বপ্নের কথা বলছি।

স্বপ্ন দেখুন যে আপনি আপনার স্যার, বন্ধু-বান্ধব সবার সামনে গড়গড় করে ইংরেজিতে কথা বলে যাচ্ছেন। পরিশ্রম, স্বপ্ন দেখা আর আত্মবিশ্বাস রাখা –এই সবগুলোই খুবই জরুরী। 

আপনি হয়তো অবাক হচ্ছেন এই ভেবে যে আমি কেন স্পোকেন ইংলিশ কোর্স নেওয়ার কথা উল্লেখ করি নি, তাইতো? স্পোকেন ইংলিশ কোর্স নিলেও আপনাকে এই স্টেপসগুলো ফলো করতে হবে, তা না হলে ওইসব কোর্স করেও কোন ফল পাবেন না।

আপনার অর্থাভাব না থাকলে, হাতে সময় থাকলে আপনি ওইরকম কোর্স নিতেই পারেন। তবে কোর্স না করেও আত্মবিশ্বাস আর পরিশ্রম দিয়ে  এই ১২ টি স্টেপস মাত্র কয়েক মাস (৩-৬) ফলো করলেই আপনি আপনার মধ্যে যে আমূল পরিবর্তন হবে তা বুঝতে পারবেন।

আশা করি ইংরেজি ভাষা শেখার সহজ উপায় গুলো আপনাকে ইংরেজি ভাষায় পারদর্শী করে তুলতে সক্ষম। এই ব্যাপারে কোন জিজ্ঞাস্য থাকলে কমেন্ট বক্সে লিখে জানাতে ভুলবেন না যেন। সুস্থ থাকুন, ভালো থাকুন, সবাইকে ভালো রাখুন। চলুন, সবাই মিলে একসাথে এক সুন্দর পৃথিবী গড়ে তুলি। এই পৃথিবীর প্রতিটি কোনা ভরে উঠুক ঈশ্বরের আশীর্বাদে!  

One thought on “ইংরেজি ভাষা শেখার সহজ উপায় – ১২টি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সাম্প্রতিক পোস্ট